ধর্ষণের সামাজিক রাজনৈতিক ও ধর্মীয় পরিপ্রেক্ষিত: ইসলামে নারী-পুরুষ সম্পর্ক অনুসন্ধান

‘‘আপনি উদিলা [বিবস্ত্র] থাকলে কি আমার শরম হবে না? [অস্পষ্ট]। আমারে উদাম [বিবস্ত্র] করছে আপনাদের লজ্জা লাগে নাই? কলিজা ফাটি যায় নাই?একটা কথা বললে কার গায়ে লাগবে? আমরার নারীর গায়ে লাগবে, দশজনারে দশজনের লাগবে না? পুরুষের [কিন্তু] লাগবে না। … কেউ যদি আমাকে সহযোগিতা করত, কেউ সহযোগিতা করে নাই। আমাদের এলাকায় তিন শ’ মানুষ হবে। আমারে উলঙ্গ [বিবস্ত্র] করি লই [নিয়ে] যায়। বলতেছি, একটু কাপড়টা পরব, তখন [যারে] বলছি, হেও ভিডিও করে। আপনারা নারীরা…আপনারা প্রতিবাদ করেন, [ভিডিওর] আগে কী হইছে সেটা দরকারি বিষয় না। এ দৃষ্টিটা [ভিডিও] …মনে ঘটল? আমি বলছি নারীর জাত এককারী [একইরকম, পার্থক্য নাই]।হ্যাঁ, [বলতে পারে] ওই মহিলা [‘সাহসিকা’ নিজে] খারাপ ছিল, কিন্তু এটা ছেলেরা কেন করল? [অস্পষ্ট]। কয়টা পাইছে খারাপ [আমার কয়টা দোষ পাইছে]? কারো সাথে কারো মিল নাই, এইটা হইতে পারে। কেউ কারো সাথে মিলে না, নয় [পরস্পরের] ঘরে যায় না। জায়গা-জমি লই [নিয়ে] ভেজাল, এইটা হইতে পারে। ওই ধরনের বাজে কারবার আমার কাছে আছে? [অস্পষ্ট, দেলোয়ার বাহিনী সারভাইভারকে দিয়ে মাদক বিক্রি করাতে চেয়েছিল, সেটা ইঙ্গিত করে বলছেন]।”

বিস্তারিত সর্বজন কথার পাতায়

Print Friendly, PDF & Email
0 Shares

Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *